চরফ্যাশনে ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তাফিজের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ

0
437

চরফ্যাশন প্রতিনিধি।।ভোলার চরফ্যাশনের নুরাবাদ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ মোস্তাফিজুর রহমানের বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। তিনি নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে বিভিন্ন অনিয়মে জড়িয়ে পরার কারণে জনগণের গলার কাটা হিসাবে দাড়িয়েছে।

সরেজমিন ঘুরে জানা গেছে, ২০১১ ইং সালে নুরাবাদ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ওই নির্বাচনে মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। সরকার জনগনের সেবার মান বৃদ্ধির জন্য ২০১৩ ইং সালে স্থানীয় সরকার বিভাগের ৪৬.১০.০৯০০.০০৪.১২-৩৮(১০০) তারিখ ২১/০১/২০১৩ ইং তারিখের স্মারকের মাধ্যমে নুরাবাদ ইউনিয়ন পরিষদকে বিভক্তি করে ৭ নং নুরাবাদ ইউনিয়ন ও ২১ নং আহাম্মদপুর ইউনিয়ন গঠন করেন। এবং ২৯.১২.২০১৪ ইং তারিখের ৪৬.১০.০৯২৫.০৯.০০০.২০১৪-১২০৪ স্মারকের মাধ্যেমে ওয়ার্ড গুলোকে বিভাজন করা হয়। এবং ৭ নং নুরাবাদ ইউনিয়ন ও ২১ নং আহাম্মদপুর ইউনিয়ন ওয়ার্ডের তালিকা প্রকাশ করা হয়। এবং ০১/০১/২০১৮ ইং তারিখে পূর্নাঙ্গ ভোটার তালিকা প্রকাশ করা হয়। ২০১১ ইং সালে নুরাবাদ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ২০১৬ ইং সালে নুরাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের মেয়াদ শেষ হলেও অদ্যবধি কোন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়নি। কোন নির্বাচন ছাড়াই চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান। নির্বাচন না দিয়ে চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্য পালনের জন্য একের পর এক মামলা করে যাচ্ছেন মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা যায়, ভোলা জেলার চরফ্যাশন উপজেলাধীন নুরাবাদ ও আহাম্মদপুর ইউনিয়নের সীমানা বিরোধ দেখিয়ে একটি আবেদন করে মোস্তাফিজ, ঐ আবেদন নিস্পত্তি করা হয়না মর্মে মোঃ নজরুল ইলাম ইসলাম বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের মাননীয় হাইকোর্ট বিভাগে রিট পিটিশন নং ৯৮৫১/২০১৬ দায়ের করেন এবং মহামান্য আদালাত কোন রুল প্রদান না করে সীমানা বিরোধ নিস্পত্তির আদেশ দেয়। যদিও সরোজমিনে কোন বিরোধ নেই। মোস্তাফিজুর রহমান অনির্দিষ্ট কালের জন্য চেয়ারম্যান দায়িত্ব পালনের উদ্দেশ্য রিট পিটিশন দায়ের করেছেন। মোঃ মানিক নামে একজনকে দিয়ে দায়ের করেছেন রিট পিটিশন নং ৭৮১১/২০১৮, ১৫৬৮৮/১৭ একের পর এক মামলা করে যাচ্ছেন চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান।

এলাকাবাসী অভিযোগ করেন, চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান ব্যাপক অনিয়ম, দূর্নিতী ও জমি দখল সহ ব্যাপক সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়েছেন। আগে একজন চেয়ারম্যান জনগণ ইউনিয়নের অভিভাবক মনে করতো। আর এখন সাধারণ মানুষের কাছে সেই চেয়ারম্যান দালাল, ভুমিদখলকারী, মাদক ব্যবসায়ী, সরকারি বরাদ্দ পকেটে চালান দেওয়ার কারিগর, নিজের পুরো গুষ্টিকে বাজার কমিটির সভাপতি, অন্যান্য ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, ও বিভিন্ন রাজনীতিক পদে বসানোর ধান্ধায় থাকে। এসকল অনিয়মের কারণে বেশ কিছু দিন আগে ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমানের সাথে একই গ্রামের দেলোয়ার গংয়ের হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে।

এই ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান দুলারহাট সদর রোডের পাশে ৪৪ শতাংশ জমির প্রকৃত মালিক হলেন মোঃ নূর হোসেন হাওলাদার । ভূয়া কাগজপত্র তৈরি করে আদালতে মামলা করে উক্ত জমি দখল করে এ.আলী সুপার মার্কেট নির্মাণ করেছেন বলে অভিযোগ করেছেন । গতকাল ০৭/০৯/২০১৯ ইং তারিখে নিজেকে প্রোঃ দাবি করে সাইন বোর্ড ঝুলিয়েছেন।

এ প্রতিবেদককে এলাকাবাসী আরো অভিযোগ করে বলেন, দুলারহাটের কাজল মিয়ার বাজারে আম্বিয়া খাতুন অটিজম স্কুল ও হাফিজিয়া এতিমখানায় দিয়ে ছাত্রদের ভর্তি করেন, যদিও এতিম শিশুরা স্থানীয়দের বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাবার খায়। কিন্তু চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান ইউনিয়নের বিজিডি ও বিজিএফ, কাবিখা প্রজেক্ট থেকে এতিম খানার নামে চাল সংগ্রহণ করে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ রয়েছে।

তারা আরো জানান, নুরাবাদ ইউনিয়নের চর-তোফাজ্জল গ্রামের আবদুরব ফিটারের কাছ থেকে একই গ্রামের জুলফিকার আলী ভূট্টো জমি ক্রয় করলেও দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। এঘটনা নিয়ে ভূট্টো দুলারহাট থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে মঙ্গলবার (৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সার্ভেয়ার ও দুইজন পুলিশ কনেস্টেবল নিয়ে জমি মাপতে শুরু করেন। এমন মুহূর্তে স্থানীয় নুরাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান ঘটনাস্থলে এসে হুমকিস্বরূপ পরিষদ সংলগ্ন দোকানপাট বন্ধ করে দিয়ে দোলোয়ার ও আবদুরবের উপর হামলা চালায়।

এছাড়া ইউপির চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান কর্তৃক দুলারহাট থানা জামে মসজিদের ব্যবহৃত পুকুর ভরাট করে মার্কেট নির্মাণের চেষ্টার প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেছেন ব্যবসায়ী ও মসজিদের মসুল্লিগণ। এ নিয়ে দু’গ্রুপের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দিলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমিন ও সহকারী কমিশনার ভূমি আশিষ কুমার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে পরিস্থিতি শান্ত করে ভরাটের কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন।
এসকল অভিযোগের অস্বিকার করে ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান বলেন আমাকে নিয়ে একটি ষড়যন্ত্রকারি মহল রাজনীতির প্রতিহিংসাপরায়ন হয়ে আমার বিরুদ্ধে এসব অপপ্রচার চালাচ্ছে।

LEAVE A REPLY