শিশুদের মাথা কাটা,ছেলে ধরা,শিশুদের নিয়ে যাওয়া সব গুজব,পুলিশ সুপার

0
273

রাকিব উদ্দিন অমি,ভোলা নিউজ২৪ডটনেট।।ভোলার চরফ্যাশন উপজেলা থেকে মাথা কাটার গুজব ছড়ানোর অভিযোগে আটক করা হয়েছে আবদুল শহিদ হাওলাদার(২৪) নামের যুবক কে।

গতকাল বুধবার তাকে ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার চরমাদ্রাজ থেকে আটক করা হয়।এ সময় তার কাছ থেকে গুজব ছড়ানোর কাজে ব্যবহৃত একটি স্মার্টফোন জব্দ করা হয়েছে।
আটক আবদুল শহিদ হাওলাদার চরফ্যাশন উপজেলার চরমাদ্রাজ ইউনিয়নের মোহাম্মদপুর গ্রামের বাসিন্দা।

আজ বৃহস্পতির দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে ভোলার নবাগত পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার জানান, দীর্ঘদিন ধরে আবদুল শহিদ হাওলাদার বিভিন্ন এলাকার মানুষকে ফোন করে এবং ফেসবুকে পোস্ট ম্যাসেঞ্জারের মাধ্যমে শিশুদের মাথা কেটে নেয়া হচ্ছে, ছেলে ধরারা শিশুদের ধরে নিয়ে যাচ্ছে, এমন গুজব ছড়িয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করছিলেন।

তিনি আরো বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে গুজব ছড়ানোর কাজে ব্যবহৃত স্মার্টফোনসহ তাকে আটক করা হয়।
প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি দোষ স্বীকার করেছেন এবং এ কাজে তার সঙ্গে আরও দুজন রয়েছে বলে জানান। আপাতত তাদের নাম প্রকাশ করা যাবে না।
আটক আবদুল শহিদকে গুজব ছড়ানোর জন্য কোনো একটি চক্র উৎসাহিত করেছে কিনা তা খুটিয়ে দেখা হচ্ছে।

তিনি বলেন, কিছু দিন ধরে জেলার বিভিন্ন মানুষকে ফোন করে, ফেসবুকে এবং ম্যাসেঞ্জারের গ্রাফিক্স ডিজাইনের মাধ্যমে মাথা কাটা ছবি, ভয়ভীতি মূলক লেখা পোস্ট এবং ম্যাসেঞ্জারে পাঠিয়ে মানুষের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি করা হচ্ছিল।
এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মীর মো: শাফিন আহমেদ,মো: রাসেলুর রহমান,সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (চরফ্যাশন সার্কেল) মো: সাব্বির হোসেন, চরফ্যাশন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সামসুল আরেফিন, ডিবি ওসি শহিদুল ইসলাম, প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকগন।

LEAVE A REPLY